1 0 3000 300 120 30 https://entforo.com/beng 960 0
site-mobile-logo

“সাগরদ্বীপে যকের ধন” MOVIE REVIEW

পরিচালনায়: সায়ন্তন ঘোষাল

My Rating for this movie: 7.9/10

প্রথমত বলি, বাংলা চলচ্চিত্রের হারিয়ে যাওয়া মর্যাদা আবার নতুন প্রজন্মের পথ‌ ধরে ফিরিয়ে আনতে এই ধরনের ছবির প্রয়োজন। একটি টানটান রহস্য ও রোমাঞ্চপূর্ণ গল্পের সাথে এই ছবিটি বাংলা সিনেমার আজ পর্যন্ত সেরা ভি.এফ.এক্স দেখাতে পেরেছে তাও তুলনামূলক স্বল্প বাজেটে। আমার মতে যদি এই ছবির বাজেট আরো বেশি হতো তাহলে ছবিটি পরিচালক সায়ন্তন ঘোষাল আরো ভালোভাবে বানাতে পারতেন
আমি গল্প বলবো না, কারন গল্পটির প্রত্যেক সেকেন্ড স্পয়লার। কিন্তু এইটুকু বলতে পারি, যে গল্পটি খুবই সুন্দর ভাবে লেখা ও সাজানো, কিন্তু ছবির দৈর্ঘ্য ২ঘন্টা হবার ফলে মনে হবে যে ছবির ঘটনা গুলি খুবই তারাহুরো করে ঘটছে ও ঘটনা ঘটার যে সঠিক সময়টা একটু কমে গেছে ও আমরা আগেই ধরে ফেলেছিলাম যে শেষে কে খলচরিত্রে আছেন, যদিও এতে গল্পের টানটান অবস্থার নরচর হয়নি। ও সায়ন্তন বাবু তার পরিচালনার দ্বারা এই ছবির সকল অসামাঞ্জ্যপূর্নতাকে খুবই ছোটো করে দিয়েছেন।তো এক কথায় ছবিটি অবশ্যই একটি সঠিক পরিচালনা ও সঠিক রমাঞ্চ মিশ্রিত একটি সুন্দর ছবি।

এবার আসি পজেটিভ ও নেগেটিভ পয়েন্টে,

পজেটিভ:

  1. স্বল্প বাজেটে একখান দুর্দান্ত ভি.এফ.এক্স(বাংলা ছবির তুলনায়), কারন ছবিটি সঠিক সময় নিয়ে নির্মিত, ও ছবির ট্রেইলার ও ছবিটির গ্রাফিক্সের মধ্যে অনেক তফাত লক্ষ করবেন
  2. অভিনয়ের দিক অত্যন্ত সুন্দর, পরম স্যার, কোয়েল ম্যাম, গৌরব স্যার, কাঞ্চন স্যার, কৌশিক স্যার, শান্তিলাল বাবু, রনি স্যার, এমনকি নিপার চরিত্রে ঐ বাচ্চা মেয়েটিও। বিশেষত কোয়েল ম্যামের অভিনয় ছিল দেখার মতো।
  3. পরিচালনা, সায়ন্তন স্যার টেকনিক্যালিটির দিকে জোর দিতে গিয়ে ছবির ইমোশনকে ক্ষতিগ্রস্ত করেননি, বরং ছবির ইমোশন‌ ছবির প্রান।
  4. বিক্রম ঘোষ স্যারের আবহ ও সঙ্গীত পরিচালনা ও শেষের গানটি ছিল গায়ে কাঁটা দেওয়ার মতো।
  5. সিনেম্যাটোগ্রাফি ও কালার গ্রেডিং

এবার কিছু নেগেটিভ পয়েন্ট:

  1. ছবির গল্পের কিছু রেফারেন্স ও দৃশ্যের সাথে এই লেখক-পরিচালক জুটির আগের ছবিগুলোর কিছু দৃশ্যের মিল দেখা যায়।
  2. ছবিটির দৈর্ঘ্যের স্বল্পতা ও স্ক্রিনপ্লের সামান্য ত্রুটি
  3. প্রয়জনের থেকে বেশি হাসানো, যা মাঝে মাঝে দারুন মনে হয়েছে, আবার মাঝে মাঝে মনে হয়েছে যে এইখানে কমেডি না থাকলেও হতো।
  4. রজতাভ স্যারের ভালো অভিনয়ের সত্তেও কথা বলার ফেক কুয়েতি এক্সেন্ট, যা একদমি ভালো লাগেনি।

তো সব মিলিয়ে ছবিটি অবশ্যই দেখা উচিত, কারন এইরকম ছবি বাংলায় বেশি হয়না।

ধন্যবাদ

Previous Post
Review of ' MARJAAVA...
Next Post
0 Comments
Leave a Reply